স্বাগতম :
আজ: রবিবার, মে ১৫, ২০১৬
সুন্দরবনে বন্দুকযুদ্ধ: নিহত ২ শেয়ার কেনাবেচায় নতুন নির্দেশনা অভিন্ন ভিসা পদ্ধতির সুপারিশ যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে গির্জায় হামলা দুদক ফাঁদে ওয়াকফের সহকারী প্রশাসক মৃত মানবীর অবয়ব (ফাতেমা হক মুক্তা) পটুয়াখালীতে দেশের সর্ব বৃহৎ বিদ্যুৎ কেন্দ্র শীতের সবজিতে ঘাটতির আশঙ্কা সংবিধানের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব ঐতিহাসিক জেল হত্যা দিবস

জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করুনঃ শেখ সেলিম

নিজস্ব প্রতিনিধি,এসবিডি নিউজ24 ডট কমঃ আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেছেন, একাত্তরেই পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাদের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো ব্যবসা-বাণিজ্যও নেই। তাই ভবিষ্যতে বাংলাদেশের কোনো অভ্যন্তরীন বিষয় নিয়ে পাকিস্তান নাক গলালে প্রয়োজনে তাদের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক রাখা হবে না। ১৪ মে (শনিবার) দুপুরে রাজাধানী গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ আওয়ামী লীগের এক যৌথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঐতিহাসিক ১৭ মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির রায় কার্যকর হওয়ার পর পাকিস্তান একের পর এক বারাবরি করে যাচ্ছে। সিমলা চুক্তি মেনে তারা বলেছিল যুদ্ধাপরাধী পকিস্তানি ১৯৫জন সেনা সদ্যস্যের বিচার করবে। কিন্তু তা তারা করেনি। তাদের মাথা থেকে বোঝা নামেনি। অথচ তারা এখনও বাংলাদেশে বসে ষড়যন্ত্র করছে। এটা কোনোভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। প্রয়োজনে তাদের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা হবে। পাকিস্তান চোখ রাঙিয়ে বাংলাদেশের কিছুই করতে পারবে না বলেও মনে করেন তিনি।

গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদকে নিয়ে বিএনপি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের ষড়যন্ত্র করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এরা ইসলাম ইসলাম করে একেবারেই গদ গদ। কিন্তু ষড়যন্ত্র করছে ইসলামের বিরুদ্ধে ইসরাইলের মোসাদকে সঙ্গে নিয়ে। বঙ্গবন্ধু মুসলমানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এই ইহুদিদের স্বীকৃতি দেননি। আর বিএনপি ইহুদিদের নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। তারা ইহুদিদের নিয়ে ষড়যন্ত্র করে শেখ হাসিনাকে উৎখাত করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করতে চায়। ইহুদিদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দিতে চায়। ইহুদিদের বঙ্গবন্ধুও স্বীকৃতি দেননি। শেখ হাসিনাও দেবেন না বলেও সাফ জানিয়ে দেন তিনি।

আওয়ামী লীগের এই প্রবীণ নেতা বলেন, ইহুদিরা বাংলাদেশকে কিনে নেবে! বঙ্গবন্ধুর একটা কর্মী বেঁচে থাকতে ইহুদিরা বাংলার মাটিতে স্থান পাবে না। কারণ ওরা ইসলাম ও বাংলাদেশের শত্রু। আর বিএনপি কখনো ক্ষমতায় যেতে পারবে না বলেও জানান তিনি। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, শেখ হাসিনাকে হত্যা ও সরকারকে উৎখাত করতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থার স্বরনাপন্ন হয়েছেন। অনেকেই ভেবেছিলো বেগম খালেদা জিয়া হয়তো তার এই ঘৃণ্য মানসিকতা থেকে বেরিয়ে এসেছেন। কিন্তু না কয়লা ধুইলে ময়লা যায় না, মানুষ মরলে স্বভাব বদলায় না। বেগম খালেদা জিয়ার সেই ঘৃণ্য মানসিকতার এখনও পরিবর্তন হয়নি।

তিনি বলেন, বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের এক নেতা ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে বৈঠক করেছেন। অথচ দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে তাদের কোনো বৈঠক হয়নি। এটা হয়তো আসলাম সাহেবের ব্যক্তিগত বৈঠক হতে পারে। বিএনপি মহাসচিবকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, ধরা খেয়ে এখন সাফাই গাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ইসরাইলের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। ইসরাইলের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো ব্যবসায়িক সম্পর্ক নেই। তাহলে আপনার দলের এক শীর্ষ নেতা কি কারণে একাধিকবার তার সঙ্গে বৈঠক করলেন? বাংলাদেশের মানুষ ঘাস খায় না বলেও জানান তিনি।  দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, সারা জাতিকে জানিয়ে দিন বিএনপি-জামায়াত এ সরকারকে উৎখাত করার জন্য নীল নকশায় লিপ্ত হয়েছে। জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করুন। তাদের মাথাচাড়া দিতে দেয়ার আর কোনো সুযোগ নেই। এই অশুভ শক্তি যে কোনো অযুহাতে রাজপথে নামলে শক্তভাবে প্রতিহত করতে হবে। তাদের বাংলাদেশে রাজনীতি করার কোনো অধিকার থাকতে পারে না বলেও মনে করেন তিনি।
পাকিস্তানকে ধৃষ্টতা না দেখানোর আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ। ভবিষ্যতে এ ধরণের ধৃষ্টতা দেখালে আপনাােদর সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক থাকবে কি না সেটা দেশের মানুষ ভেবে দেখবে বলেও জানিয়ে দেন তিনি। ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি একে এম রহমত উল্লাহর সভাপতিত্বে এ যৌথসভায় আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ড. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা মহানগর উত্তর সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ।

প্রাসঙ্গিক সংবাদঃ

  • সকল খুনিদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
  • বিএনপির সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকতে হবেঃ মির্জা ফখরুল
  • শহীদ মিনার, স্মৃতি সৌধ, বুদ্ধিজীবী স্মৃতি সৌধ জামাতের জন্য নিষিদ্ধ করুনঃ ইনু
  • লুটের টাকা কমে যাচ্ছে বলে খালেদা জিয়া দেশে অশান্তি সৃষ্টি করতে চাইছেনঃ শেখ হাসিনা
  • শেখ হাসিনা যুদ্ধাপরাধিদের বিচারের নামে মূলত জাতিকে বিভক্ত করছেঃগয়েশ্বর