স্বাগতম :
আজ: রবিবার, নভেম্বর ৫, ২০১৭
সুন্দরবনে বন্দুকযুদ্ধ: নিহত ২ শেয়ার কেনাবেচায় নতুন নির্দেশনা অভিন্ন ভিসা পদ্ধতির সুপারিশ যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে গির্জায় হামলা দুদক ফাঁদে ওয়াকফের সহকারী প্রশাসক মৃত মানবীর অবয়ব (ফাতেমা হক মুক্তা) পটুয়াখালীতে দেশের সর্ব বৃহৎ বিদ্যুৎ কেন্দ্র শীতের সবজিতে ঘাটতির আশঙ্কা সংবিধানের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব ঐতিহাসিক জেল হত্যা দিবস

পটুয়াখালীতে দেশের সর্ব বৃহৎ বিদ্যুৎ কেন্দ্র

এসবিডি নিউজ24 ডট কম,ডেস্ক: বরিশালের পটুয়াখালীতে দেশের সর্ব বৃহৎ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে জার্মান ভিত্তিক সিমেন্স এজির সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি (এমওইউ) সই করেছে সরকার। রোববার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড (এনডব্লিউপিজিসিএল) এবং জার্মান ভিত্তিক সিমেন্স এজি এই চুক্তিতে সই করে। পটুয়াখালীর ধানখালীতে ২০২১ সাল নাগাদ ৩ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম এলএনজি ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র হবে এটি। বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ১ হাজার ২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার তিনটি ইউনিটে ২০২১ সাল নাগাদ মোট ৩ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে।


৫ নভেম্বর (রোববার) বিদ্যুৎ ভবনে এনডব্লিউপিজিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার খুরশীদ আলম এবং সিমেন্স সাউথ এশিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুনীল মাথুর নিজ নিজ পক্ষে চুক্তিতে সই করেন। প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী চুক্তি সই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং জার্মান রাষ্ট্রদূত ড. টমাস প্রিনজ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।


ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী বলেন, বিদ্যুৎ খাতের আধুনিক যন্ত্রপাতি চালনার জন্য দক্ষ করে তুলতে কর্মশালা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য সহায়ক হবে। তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ভবিষ্যতে কর্মশালা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম আয়োজনের অনুরোধ জানান। নসরুল হামিদ এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিনিয়োগকে জার্মানির একক বৃহত্তম বিনিয়োগ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ২.৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ এবং ৪০০ মিলিয়ন ডলার ইকুয়িটিসহ এতে আনুমানিক ব্যয় দাঁড়াবে ২.৮ বিলিয়ন ডলার। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের প্রতি আস্থা প্রদর্শন করে জার্মান সরকার এই বৃহত্তম বিনিয়োগে এগিয়ে এসেছে।


বাংলাদেশে জার্মান রাষ্ট্রদূত ড. টমাস প্রিনজ বলেন, রোহিঙ্গা সংকটে জার্মান সরকার বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, আমরা বাংলাদেশের একটি নির্ভরযোগ্য উন্নয়ন অংশীদার হতে আগ্রহী এবং জার্মান বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের একক বৃহত্তম ক্রেতা। তিনি বলেন, জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ১৯ নভেম্বর বাংলাদেশ সফর করবেন।

প্রাসঙ্গিক সংবাদঃ

  • দেশের সম্পদ সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে আত্মমর্যাদাশীল জাতি হওয়া যাবেঃ প্রধানমন্ত্রী
  • ১২ মার্চের মহাসমাবেশ কেন্দ্র করে সরকারের নানামুখি পদক্ষেপঃ বিপাকে সাধারণ মানুষ
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ দৈনিক দুই হাজার ৮৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্পাদন হয়েছেঃ এনামুল হক
  • পটুয়াখালীতে যুবক হত্যা
  • বগুড়ার ধুনটে জমি দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে একজন নিহত : ১ আহত: ১৫